• Saturday, October 21, 2017
logo
add image
অবশেষে চন্দনাইশ সাংসদের সমঝোতা আ’লীগের সাথে

অবশেষে চন্দনাইশ সাংসদের সমঝোতা আ’লীগের সাথে

নিজস্ব সংবাদদাতা,চন্দনাইশ : আগামী ২০ জুন (২৪ রমজান) চট্টগ্রাম-১৪ আসনের সাংসদ আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম চৌধুরীর ব্যক্তিগত উদ্যোগ এবং উপজেলা আ’লীগের উদ্যোগে একই তারিখে পৃথক পৃথক ইফতার মাহফিলের আয়োজনের ঘোষণা দেয়া হয়।

বিষয়টি নিয়ে শুক্রবার(১৬ জুন) দক্ষিণ জেলা আ’লীগের সভাপতি আলহাজ্ব মোসলেম উদ্দিন আহমদের চট্টগ্রামস্থ বাসায় উভয়পক্ষকে নিয়ে এক বৈঠকে মিলিত হয়। বৈঠকে স্থানীয় সাংসদ আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম চৌধুরী, উপজেলা আ’লীগের সভাপতি জাহিদুল ইসলাম জাহাঙ্গীর, সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ সদস্য আবু আহমদ জুনু, পৌর মেয়র মাহবুবুল আলম খোকা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক যথাক্রমে মাহবুবুর রহমান চৌধুরী ও এড. নজরুল ইসলামের উপস্থিতিতে এক বৈঠকে মিলিত হন। বৈঠকে উভয়পক্ষকের বক্তব্য শুনে জেলা আ’লীগের সভাপতি বিষয়টি নিরসনকল্পে একটি সিদ্ধান্তে আসেন।

সে সিদ্ধান্তের আলোকে গত শনিবার ১৭ জুন বাদে মাগরিব উপজেলা আ’লীগের সভাপতি জাহিদুল ইসলামের চন্দনাইশ সদরস্থ বাসভবনে স্থানীয় সাংসদ আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম চৌধুরী উপস্থিত হয়ে নেতা-কর্মীদের বক্তব্য শুনেন। দীর্ঘ ৩ ঘন্টাকাল আলোচনায় অংশ নেন দক্ষিণ জেলা আ’লীগের সহ-সভাপতি চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান, উপজেলা আ’লীগের সভাপতি জাহিদুল ইসলাম জাহাঙ্গীর, সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ সদস্য আবু আহমদ জুনু, সহ-সভাপতি যথাক্রমে বলরাম চক্রবর্তী, কাইছার উদ্দিন চৌধুরী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক যথাক্রমে মাহবুর রহমান চৌধুরী ও এড. নজরুল ইসলাম, আ’লীগ নেতা সমীরন দাশ তপন, জাবেদ মো. গাউস মিল্টন, চেয়ারম্যান আমিন আহমেদ চৌধুরী রোকন, বেলাল হোসেন মিঠু, সাহাব উদ্দিন, যুবলীগ নেতা ইয়াসিন আরাফাত চৌধুরী, চৌধুরী আমির মো. সাইফুদ্দীন, দক্ষিণ জেলা প্রজন্মলীগের সাধারণ সম্পাদক নাজিম উদ্দিন, আবদুচ ছবুর, ছাত্রলীগ নেতা করম উল্লাহসহ আ’লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত থেকে তাদের বক্তব্য উপস্থাপন করেন। এ সময় স্থানীয় সাংসদ নেতা-কর্মীদের বক্তব্য ধৈর্য্য সহকারে শ্রবণ করেন।

পরে তিনি প্রধান অতিথির বক্তব্যে সকল ভুল বুঝাবুঝির অবসান ঘটিয়ে নেতা-কর্মীদের সংগঠিত হয়ে আগামী নির্বাচনে নৌকার প্রার্থীকে জয়ী করার উপর গুরুত্বারোপ করেন। তিনি নেতা-কর্মীদের এক বক্তব্যের প্রেক্ষিতে বলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুল জব্বার চৌধুরী আ’লীগে যোগদান করেছিলেন। যদি দলের কোন ক্ষতি হয় তাহলে সে চলে যাবে। নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলা এবং রাজনৈতিক কর্মকান্ড পরিচালনার জন্য দক্ষিণ জেলা আ’লীগের সহ-সভাপতি হাবিবুর রহমান, উপজেলা আ’লীগের সভাপতি জাহিদুল ইসলাম জাহাঙ্গীর, সাধারণ সম্পাদক আবু আহমদ চৌধুরীসহ সিনিয়র নেতৃবৃন্দদের নিয়ে ৭ বিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করা হবে।

সে কমিটির মাধ্যমে সরকারের উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড ও রাজনৈতিক কর্মকান্ড পরিচালিত হবে বলে তিনি মত ব্যক্ত করেন। সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার লক্ষ্যে আগামী ২০ জুন সাংসদের নিজ বাড়ীতে উপজেলা আ’লীগের উদ্যোগে ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে। সেখানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন দক্ষিণ জেলা আ’লীগের সভাপতি আলহাজ্ব মোসলেম উদ্দিন আহমদ। প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত থাকবেন সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান।

বিশেষ অতিথি থাকবেন চট্টগ্রাম-১৪ আসনের সাংসদ আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম চৌধুরী, দক্ষিণ জেলা আ’লীগের সহ-সভাপতি চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান। তিনি বলেন, তিনি আ’লীগে ছিলেন, আ’লীগে থাকবেন। যতদিন বেঁচে থাকবেন বঙ্গবন্ধু, জননেত্রী শেখ হাসিনার রাজনীতি করে জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু বলে তাঁর জীবনাবসান হোক এটাই তিনি প্রার্থনা করেন। তিনি আরও বলেন, তাঁর সাড়ে তিন বছরের সংসদ সদস্যকালীন চন্দনাইশের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, সড়কসহ বিভিন্ন ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে।

কিন্তু কর্মীরা বা আ’লীগ নেতারা ধাপটদার করছে না। আজ থেকে গ্রুপিং নয়, বঙ্গবন্ধু, জননেত্রী শেখ হাসিনা স্লোগান দিয়ে দেশ এবং জনগণের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন। অন্যথায় একটি মহল এ দেশটাকে তালেবান রাষ্ট্রে পরিনত করবেন বলে তিনি অভিমত ব্যক্ত করেন। পরে নেতা-কর্মীদের সাথে তিনি সৌহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশে সভাপতি জাহিদুল ইসলাম জাহাঙ্গীরের বক্তব্যের মাধ্যমে সভার সমাপ্তি ঘটে। অবসান হয়ে যায় চন্দনাইশ আ’লীগের দিধাবিভক্তি। অবশেষে স্থানীয় সংসদ সদস্য ও আ’লীগের উদ্যোগে একটি ইফতার অনুষ্ঠিত হওয়ার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয় আগামী ২০ জুন।

Leave a reply