• Tuesday, October 24, 2017
logo
add image
ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে চলছে কার্যক্রম, ধসে পড়ার আশংকা

ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে চলছে কার্যক্রম, ধসে পড়ার আশংকা

শাহিদ মোস্তফা শাহিদ, কক্সবাজার সদর,সিটিনিউজ::কক্সবাজার সদরের ৪নং ঈদগাঁও সদর ইউনিয়ন পরিষদের কার্যক্রম চলছে ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে। মৃত্যুর ঝুঁকি নিয়ে কর্মকান্ড চালিয়ে যাচ্ছে সংশ্লিষ্টরা। ভূমিকম্প কিংবা প্রাকৃতিক দূর্যোগে যে কোন সময় ধ্বসে যেতে পারে। উপরের তলায় পুলিশের ব্যারাক স্থাপন ও ছাদটি নিয়মিত ব্যবহারের ফলে ধ্বসে যেতে পারে ইউপি ভবনটি।

সরেজমিনে দেখা যায়, তৎকালীন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এ.জেড.এম শাহজাহান চৌধুরী লুতু মিয়ার উদ্যোগে নির্মিত ইউপি ভবনটিতে পরিষদের নিয়মিত কার্যক্রম চলে আসছে। বিগত কয়েক বছর পূর্ব থেকেই ভবনের বিভিন্ন অংশে বড় ধরণের ফাটল দেখা দিয়েছে। ছাদ থেকে বৃষ্টির পানি চুষে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে গুরুত্বপূর্ণ কাগজপত্র। বিকল্প কোন ভবন না থাকায় ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় অব্যাহত রয়েছে স্বাভাবিক কাজ। তারপরও সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষ ভবনটিকে পরিত্যক্ত ঘোষণা করেনি।

বিশেষ করে সারাদেশে সরকার বিভিন্ন সুবিধা সম্বলিত ইউপি ভবন নির্মাণ করলেও অতি গুরুত্বপূর্ণ অত্র পরিষদের ভাগ্যে জুটেনি বহুতল ভবন। যার জন্য পরিষদে আসা ইউনিয়নের হাজার হাজার জনগণ আতঙ্কগ্রস্থ হয়ে পড়েছে। জরাজীর্ণ এ ভবনটি বাজার ও প্রধান সড়ক থেকে নীচু হওয়াতে বর্ষা মৌসুমে পার্শ্ববর্তী ফুলেশ^রী নদীর ঢলের পানিতে মাসের পর মাস ডুবে থাকে।

যার দরুণ একদিকে ভবনে ব্যাপক ফাটল, অন্যদিকে বর্ষায় ডুবে থাকা ও জায়গার অপ্রতুলতার মাঝে, চরম ঝুঁকিতে জনসাধারণকে সেবা দিয়ে যাচ্ছে বিপুল ভোটে নির্বাচিত জন নন্দিত জননেতা চেয়ারম্যান ছৈয়দ আলম ও অপরাপর সদস্যা-সদস্য, কর্মকর্তা, কর্মচারীবৃন্দ। এ ব্যাপারে কক্সবাজার সদর উপজেলার ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী ভূমি কমিশনার পঙ্কজ বড়–য়ার সাথে যোগাযোগ করা হলে জানান, লিখিত একটি আবেদন করেছেন যার পরিপ্রেক্ষিতে উপজেলা প্রকৌশলীকে সরেজমিন পরিদর্শনে পাঠানো হয়েছে।

প্রতিবেদন জমা দিলেই পরবর্তী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। অন্যদিকে চেয়ারম্যান আলহাজ¦ ছৈয়দ আলম জানান, ইতিপূর্বে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে লিখিতভাবে জানানো হয়েছে। তারই প্রেক্ষিতে উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ মুস্তাফিজুর রহমান সরেজমিনে পরিদর্শন করে গেছেন।

Leave a reply