• Tuesday, October 24, 2017
logo
add image
মা দূর্গার পরিবার!

মা দূর্গার পরিবার!

নীল ঊষা সাঈম :: এ যেনো মায়ের পরিবার! সবাইকে নিয়েই মা এসেছেন নিজ বাড়িতে। কে নেই তার পরিবারে? মা দুর্গার পরিবারের সকলের দেখা মিলে রাঙামাটি শহরের কালিন্দাপুর শ্রী শ্রী দশভূজা মার্তৃ মন্দিরে।

মহাদেবকে দেখা যায় ঘরের উঠানের একটি কোণে আসন করে বসে আছেন, তার পাশের গাছের ঢালে দুষ্টমির ছলে বসে আছেন কার্তিক তার ঠিক নিচেই রয়েছে তার বাহন ময়ূর, ঘরের মেজেতে বসে বসে সু মধুর কন্ঠে গান শুনাচ্ছেন সরস্বতী, পাশের মা লক্ষী অন্ন তৈরিতে ব্যস্ত, দেখা যায় তিনি কূলোয় চাউল দেখছেন, বাড়ির উঠানে দেখা যায় গনেশ রয়েছে দাঁড়িয়ে পাশেই তার ছোট্ট ইঁদুর ছানা, এরপরে আল্পনায় ব্যস্ত মা দূর্গা, শুধুই কি আল্পনা? কত কাজ করছেন তিনি দশ হাত দিয়ে।

মঞ্চের ঠিক কোণায় দেখা মিলে শান্ত-সৃষ্ট ভাবে বসে আছেন মা দূর্গার বাহন সিংহ মামা। মঞ্চের ঠিক নিচে অসুর বদ করছেন মা দূর্গা, সেই দৃর্শের দেখা মিলে পরিশেষে।

শরৎ কালের আগমনীর মধ্যে দিয়ে বাঙ্গালী হিন্দু সম্প্রদায়ের বড় উৎসব শারদীয় দূর্গা পূজা ইতিমধ্যে শুরু হয়ে গিয়েছে। মহালয়ার দিন মা দূর্গা নৌকায় চড়ে আগমন করেন। তার আগমনীর পরে পঞ্চমী থেকে শুরু হয়েছে পূজার মূল আনুষ্ঠানিকতা।

প্রতিটি মন্দিরে ঢাক আর ঢোলের তালে সবাই মেতে উঠেছে শারদীয়া উৎসবে। জাতি,ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে পালন করছেন এই উৎসব। এ যেনো অসাম্প্রদায়িক মিল বন্ধন।

রাঙামাটি জেলার ৪০ টি মন্ডপে উদ্যাপিত হচ্ছে দূর্গা পূজা। সদরের ১৪টি মন্ডপে আয়োজন করা হয়েছে এই পূজার। সদরের কালিন্দাপুর শ্রী শ্রী দশভূজা মার্তৃ মন্দিরেও আয়োজন করা হয়েছে দূর্গা পূজার।

এবার দশভূজা মন্দিরের বিষয় হচ্ছে ‘সনাতনী বাঙ্গালী ভাষ্কার্যে স্ব-পরিবারে মা দূর্গা’। গ্রাম্য সমাজের রুপে মা দূর্গার পরিবারকে দেখা মিলে সেই মন্দিরের মন্ডপে।

কালিন্দাপুর শ্রী শ্রী দশভূজা মার্তৃ মন্দিরের পূজা উদ্যাপন কমিটির সভাপতি সুনিল কান্তি পাল বলেন, আমরা মায়ের স্ব-পরিবারকে আমন্ত্রণ জানিয়েছি।

আমাদের এই মন্ডপে মায়ের পরিবারের সবাইকে দেখা যাবে গ্রাম্য পরিবেশে। রাঙামাটিতে এই প্রথম এমন একটি দৃর্শ দেখতে পাবে সকলে বলে জানান তিনি।

আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর বিজয়া দশমীর দিন দেবী দূর্গা ঘোড়ায় চড়ে গমন করবেন বলে জানা যায়।

 

Leave a reply