আইয়ুব বাচ্চু বিহীন এলআরবি শঙ্কায়

0

সিটি নিউজ ডেস্ক : আইয়ুব বাচ্চু বিহীন এলআরবি ভাবাই যায় না। বাংলাদেশের একটি বিখ্যাত ও জনপ্রিয় রক ব্যান্ড দলটির জন্ম হয়েছিল তার হাত ধরেই। তিনি দলটির নেতা। টুটুল, জয় এবং স্বপন ব্যান্ডের প্রতিষ্ঠাকালীন সময়ে সহ-সদস্য হিসেবে যোগ দিয়েছিলেন। এরপর অনেকেরই আসা-যাওয়া হয়েছে। কিন্তু শক্ত হাতে দলটা বাঁচিয়ে রেখেছিলেন আইয়ুব বাচ্চু। সেই লিড গিটারিস্ট আর ভোকাল গত ১৮ অক্টোবর চলে গেলেন না ফেরার দেশে। শোক এখনো কাটিয়ে উঠতে পারেনি ভক্তরা। কিন্তু এরইমধ্যে বাতাসে ভাসছে একটা প্রশ্ন- এবার কী হবে এলআরবির?

উত্তরটা অবশ্য ভক্তদের জানা নেই। কিন্তু শঙ্কা আছে মনে! বাচ্চু বিহীন এলআরবি বাঁচবে তো? কারণ দলটাতে একক আধিপত্য ছিল তারই। এমনকি কোনো বিকল্প ভোকালও নেই। এসআই টুটুল চলে যাওয়ার পর একাই সব গান গেয়েছেন আইয়ুব বাচ্চু। এমনকি টুটুলের বিকল্প খুঁজে নেয়নি তারা। কিবোর্ড ছাড়াই এগিয়ে গেছে এলআরবি! এবার কী হবে? দলে আছেন আবদুল্লাহ আল মাসুদ, স্বপন আর রোমেল। যারা তারকা দ্যুতি আর পরিচয়ে আইয়ুব বাচ্চুর চেয়ে অনেক অনেক পিছিয়ে। তাদের কেউ একজন ব্যান্ডের দ্বায়িত্ব নিলে গান গাইবেন কে? এর আগে আইয়ুব বাচ্চু নিজেই বলেছিলেন, এলআরবি নতুন সদস্য খুঁজতে যাবে না। দলটির দ্বায়িত্ব নেবেন তাদেরই সন্তানরা। সেই হিসেবে উঠে আসছে বাচ্চুর ছেলে আহনাফ তাজোয়ারের নাম। যিনি বাবার কাছ থেকে এরইমধ্যে গিটারের তালিম নিয়েছেন। এমনকি বামবার সর্বশেষ কনসার্টে বাজিয়েছেনও। তবে তাকে গাইতে শোনেনি কেউ!

সব মিলিয়ে এলআরবির ভবিষ্যৎ নিয়ে শঙ্কা থাকছেই। ১৯৯১ সালে ব্যান্ডদল এলআরবি (লিটল রিভার ব্যান্ড) গঠন করেন বাচ্চু। পরে যার নাম পাল্টে রাখা হয় লাভ রানস ব্লাইন্ড। কালজয়ী অসংখ্য গান উপহার দিয়ে ব্যান্ড গ্রুপটি হয়ে ওঠে দেশের অন্যতম জনপ্রিয় রক গ্রুপ! তাদের জনপ্রিয়তা দেশের সীমানা ছাড়িয়ে গোটা বিশ্বেই ছড়িয়ে পড়ে। কিন্তু সেই এগিয়ে চলার গল্প যিনি লিখেছেন সেই আইয়ুব বাচ্চুই এখন আর নেই!

এ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Leave A Reply

Your email address will not be published.