• Tuesday, June 26, 2018
logo
add image

খালেদা জিয়া আজ দুই মামলায় হাজিরা দিলেন

খালেদা জিয়া আজ দুই মামলায় হাজিরা দিলেন


সিটি নিউজ ডেস্কঃ দুর্নীতির দুই মামলায় হাজিরা দিতে অষ্টম দিনে মতো যুক্তিতর্ক উত্থাপনে আদালতে হাজির হয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।

আজ বুধবার (১০ জানুয়ারি) বেলা ১১টা ৫২ মিনিটে রাজধানীর বকশিবাজারে কারা অধিদফতরের প্যারেড মাঠে স্থাপিত ঢাকার পঞ্চম বিশেষ জজ ড. আখতারুজ্জামানের আদালতে হাজির হন খালেদা জিয়া। এর আগে সকাল ১১টা ৫মিনিটে আদালতে উদ্দেশে গুলশানের বাসা থেকে বের হন তিনি।

দু’টি মামলায় যুক্তিতর্ক উত্থাপনের জন্য দিন ধার্য থাকলেও জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় যুক্তিতর্ক চলছে। খালেদা জিয়ার পক্ষে গত বছরের ২০, ২১, ২৬, ২৭, ২৮ ডিসেম্বর ও চলতি বছরের ২ জানুয়ারি তার আইনজীবীরা যুক্তি উত্থাপন করেছেন।

বর্তমানে সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল অ্যাডভোকেট এ জে মোহাম্মদ আলী যুক্তি উত্থাপন করছেন। এর আগে অ্যাডভোকেট আব্দুর রেজ্জাক খান ও অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন যুক্তি উত্থাপন করেন। জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলার যুক্তিতর্ক এখনও শুরু হয়নি।

চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় আসামি মোট চারজন। খালেদা ছাড়া অপর তিন আসামি হলেন- খালেদা জিয়ার তৎকালীন রাজনৈতিক সচিব হারিছ চৌধুরী, হারিছ চৌধুরীর তৎকালীন একান্ত সচিব বর্তমানে বিআইডব্লিউটিএ’র নৌ-নিরাপত্তা ও ট্রাফিক বিভাগের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক জিয়াউল ইসলাম মুন্না এবং ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকার একান্ত সচিব মনিরুল ইসলাম খান।

এ মামলায় সাক্ষ্য দিয়েছেন মোট ৩২ জন। জামিনে থাকা অন্য দুই আসামি জিয়াউল ইসলাম মুন্না ও মনিরুল ইসলাম খান আত্মপক্ষ সমর্থন করে আদালতে লিখিত বক্তব্য দিয়েছেন। হারিছ চৌধুরী মামলার শুরু থেকেই পলাতক।

অন্যদিকে অরফানেজ মামলায় খালেদা জিয়াসহ আসামি মোট ছয়জন। অন্য পাঁচ আসামি হলেন- বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান ও খালেদার বড় ছেলে তারেক রহমান, মাগুরার সাবেক এমপি কাজী সালিমুল হক কামাল ওরফে ইকোনো কামাল, ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদ,সাবেক প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সাবেক সচিব ড. কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী ও প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ভাগ্নে মমিনুর রহমান।

খালেদা দেরিতে আসায় অসন্তুষ্ট বিচারক

জিয়া অরফানেজ ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া আদালতে দেরিতে হাজির হওয়ায় বিচারক অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন।

বিএনপি চেয়ারপারসন বুধবার বেলা ১১টা ৫২ মিনিটে আদালত হাজিরা দিতে আসেন। খালেদা জিয়া আদালতে আসার পর বকশীবাজারের আলিয়া মাদরাসা মাঠে স্থাপিত ঢাকার ৫নং বিশেষ জজ ড. আখতারুজ্জামান দুপুর ১২টায় আদালতের এজলাস কক্ষে বসেন।

এসময় বিচারক খালেদার উদ্দেশে বলেন, এভাবে সময় নষ্ট করলে চলবে না। আপনার হাজিরার সময় ছিল সাড়ে ৯টা, কিন্তু এখন বাজে ১২টা। আগামীকাল থেকে সাড়ে ১০টায় কোর্টে হাজির থাকতে হবে। এই সময় খালেদার আইনজীবীদের সঙ্গে বিচারকের বাকবিতণ্ডা হয়।

খালেদার আইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলী বিচারককে বলেন, রাস্তায় যানজট ছিল। তাই ম্যাডামের আসতে দেরি হয়েছে। তখন বিচারক খালেদার আইনজীবীকে বলেন, আপনারা তো সাড়ে ৯টায় আদালতে এসেছেন। ওনার আসতে এতো দেরি হয় কেন?

এর জবাবে মোহাম্মদ আলী বলেন, এটা সামরিক আদালত না যে সঠিক সময় আদালতে হাজির হতে হবে। তখন বিচারক বলেন, আপনারা অষ্টম দিনের মতো যুক্তি উপস্থাপন করছেন। আজকের মধ্যে আপনাদের যুক্তি উপস্থাপন শেষ করতে হবে।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় ৮ম দিনের মতো যুক্তি উপস্থাপন করছেন তার আইনজীবীরা। এছাড়া আজ জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায়ও যুক্তি উপস্থাপনের জন্য দিন ধার্য রয়েছে। আজ তিনি দুটি মামলায় হাজিরা দিয়েছেন।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্টের নামে এতিমদের জন্য বিদেশ থেকে আসা ২ কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার ৬৭১ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ২০০৮ সালের ৩ জুলাই রাজধানীর রমনা থানায় প্রথম মামলাটি করা হয়।

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্টের নামে অবৈধভাবে ৩ কোটি ১৫ লাখ ৪৩ হাজার টাকা লেনদেনের অভিযোগে ২০১০ সালের ৮ আগস্ট রাজধানীর তেজগাঁও থানায় একটি মামলা করে দুদক।