বাতিল ৭৮৬ জন প্রার্থীদের আবেদন ৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত

0

সিটি নিউজ ডেস্ক : সারাদেশে মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই শেষে বাদ পড়া ৭৮৬ জন আগামী ৫ ডিসেম্বরের মধ্যে আবেদন করতে পারবেন বলে জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন। তবে এর পরেও শুনানিতে ইসি মনোনয়নপত্র বাতিলের সিদ্ধান্ত বহাল রাখলে ওই প্রার্থীরা আদালতে যেতে পারবেন বলে জানান নির্বাচন সংশ্লিষ্টরা।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল অনুযায়ী, ২৮ নভেম্বর পর্যন্ত আগ্রহীদের মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার সুযোগ ছিল নিজ নিজ সংসদীয় আসনের সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে। এরপর গতকাল রোববার পর্যন্ত ছিল মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাইয়ের শেষ দিন। এদিন সকাল ৯টা থেকে ৫টা পর্যন্ত প্রতিটি আসনে দাখিল হওয়া মনোনয়নপত্রগুলো চূড়ান্তভাবে যাচাই-বাছাই করা হয়। রিটার্নিং ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তারা প্রার্থীর যোগ্যতা-অযোগ্যতা বিবেচনা করে আইন অনুযায়ী মনোনয়নপত্র বৈধ বা অবৈধ ঘোষণা করবেন। দিন শেষে জানানো হয়, দেশের ৩০০টি সংসদীয় আসনে ৭৮৬টি মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে।

এ বিষয়ে ইসির নির্বাচন পরিচালনা শাখার যুগ্ম সচিব ফরহাদ আহামদ খান বলেন, রিটার্নিং কর্মকর্তার সিদ্ধান্তে সংক্ষুব্ধ ব্যক্তিরা প্রধান নির্বাচন কমিশনার বরাবর অভিযোগ দাখিল করতে পারবেন। এটা করতে হবে আগামী ৩, ৪ ও ৫ ডিসেম্বরের মধ্যে। আর কমিশন প্রার্থীদের অভিযোগ আমলে নিয়ে ৬, ৭ ও ৮ ডিসেম্বর শুনানি করে সিদ্ধান্ত দেবে। এক্ষেত্রে নির্বাচন কমিশনই আপিল কর্তৃপক্ষের ভূমিকা পালন করবেন।

প্রসঙ্গত, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য সারাদেশের ৩০০ আসনে মোট ৩ হাজার ৬৫ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এর মধ্যে ৭৮৬ জনের মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাইয়ে বাতিল হওয়ায় এখন পর্যন্ত বৈধ প্রার্থীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২২৭৯ জন।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফিসল অনুযায়ী, ৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত মনোনয়নপত্র বাতিল সংক্রান্ত আবেদনের শুনানির পর ৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত প্রার্থীরা মনোনয়ন প্রত্যাহার করতে পারবেন। পরদিন ১০ ডিসেম্বর বৈধ প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ দেবে কমিশন। আগামী ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে ভোটগ্রহণ।

এ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Leave A Reply

Your email address will not be published.