• Wednesday, September 19, 2018
logo
add image

সামান্য বৃষ্টিতে সড়কের কার্পেটিং নষ্ট

সামান্য বৃষ্টিতে সড়কের কার্পেটিং নষ্ট


নিজস্ব প্রতিনিধি,চন্দনাইশ :  চন্দনাইশ উপজেলার দেওয়ানহাট-বৈলতলী সড়কের কার্পেটিং উঠে গিয়ে বিভিন্ন জায়গায় খানা খন্দ সৃষ্টি হয়েছে। ফলে সড়কের দু’পাশে থাকা দোকান-পাট ও সাধারণ মানুষের চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। সামান্য বৃষ্টি হলেই সড়কে পানি জমে সড়কের কার্পেটিং নষ্ট হয়ে যাচ্ছে।

সরেজমিনে,উপজেলার চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়ক দেওয়ানহাট থেকে শুরু হয়ে সড়কটি সাতবাড়িয়া মহুরীহাট হয়ে বৈলতলী ইউনুচ মার্কেট পর্যন্ত সড়কটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ সড়ক। এ সড়ক দিয়ে চন্দনাইশের দোহাজারী, সাতবাড়ীয়া, বৈলতলীসহ বিভিন্ন এলাকার লোকজন যানবাহনে করে চট্টগ্রাম শহর এলাকাসহ বিভিন্ন এলাকায় যাতায়ত করে থাকে।

এ সড়ক দিয়ে বিভিন্ন স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসার, বিভিন্ন প্রাথমিক বিদ্যালয় ও চন্দনাইশ সদর তথা বিভিন্ন এলাকায় শত শত লোকজন এ সড়ক দিয়ে চলাচল করে থাকে। গত ২০১৪ সালে দেওয়ানহাট হতে বৈলতলী ইউনুচ মার্কেট পর্যন্ত সড়কটি সংস্কার করা হয়। কিন্তু মাত্র ৩ বছর অতিবাহিত হওয়ার পর পর সড়কটির বিভিন্ন অংশে কার্পেটিং উঠে গিয়ে গর্তে পরিণত হয়েছে। ফলে যানবাহন চলাচল দারুণভাবে ব্যাহত হচ্ছে।

এ ব্যাপারে বাস মালিক সমিতির পক্ষ থেকে নির্বাহী প্রকৌশলী সড়ক ও জনপথ বিভাগ, দোহাজারী, উপজেলা চেয়ারম্যান চন্দনাইশ, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্র্তা চন্দনাইশসহ বিভিন্ন দপ্তরে সড়কটির সংস্কারের জন্য আবেদন করেছেন। কিন্তু অদ্যবধি সড়কটির সংস্কার না হওয়ায় যানবাহন চলাচল ব্যাহত হওয়ার পাশাপাশি সড়কের পাশে থাাকা দোকান পাট গুলি বৃষ্টির ময়লা পানিতে ময়লা যুক্ত হয়ে যাচ্ছে।

দেওয়ানহাট আলুর গোডাউন, আশ্রাফ মহুরীহাটসহ বৈলতলী ইউনুচ মার্কেটের পশ্চিম পার্শ্বের এলাকাসহ বিভিন্ন এলাকায় গর্তে পরিণত হয়ে বৃষ্টির পানি জমে থাকে। ফলে যানবাহন চলাচলের সময় রাস্তার পাশ দিয়ে চলাচলকারী সাধারণ মানুষের কাপড় চোপড় ময়লা পানিতে নষ্ট হয়ে যায়। গাড়ির চালকদের অভিযোগ সড়কের বেহাল দশার কারণে গাড়ির যন্ত্রাংশ নষ্ট হওয়ার পাশাপাশি অতিরিক্ত ভাড়া দিতে হচ্ছে যাত্রীদের।

সামান্য বৃষ্টিতে সড়কে পানি জমে থাকে। সড়ক দিয়ে যানবাহন চলাচল করার সময় সড়কের পাশে থাকা দোকান, ক্রেতা, চলাচলকারী পথচারীদের কাদা পানিতে একাকার হয়ে কাপড় চোপড় নষ্ট হয়ে যায়। সড়কটি সংস্কারের ব্যাপারে স্থানীয়রা বলেছেন, কয়েক বছর আগে সড়কটি সংস্কার করা হলেও কাজের মান ভাল না হওয়ায় অল্প সময়ের নষ্ট হয়ে কার্পেটিং উঠে যাচ্ছে।

এ সড়কে কার্পেটিং করার পর যথাযথ কর্তৃপক্ষ তদারকি না করায় কাজের মান ভাল না হওয়ার কারণে সড়কটি অল্প সময়ের মধ্যে নষ্ট হয়ে যায়। জনগনের চলাচলের সুবিধার্থে সড়কটি জরুরীভাবে সংস্কার করা অত্যাবশ্যক। এ ব্যাপারে যাথাযথ কর্তৃপক্ষ আগামীতে পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন বলে স্থানীয়রা আশাবাদ ব্যক্ত করেন। খুব শীঘ্রই সড়কটি সংস্কারের মাধ্যমে জনসাধারণের চলাচলের সুযোগ করে দিবেন বলে তারা আশাবাদী।